বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, উগ্রবাদী জঙ্গি সন্ত্রাসীরা মানব সভ্যতার অগ্রগতিকে থমকে দেয়ার জন্য বিশ্বব্যাপী তাদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে দেশে দেশে নারকীয় তাণ্ডবে মেতে উঠেছে। পাশবিক বল প্রয়োগ করে কোন রাজনৈতিক লক্ষ্য অর্জন অসম্ভব। রক্তাক্ত সহিংস সন্ত্রাসের দ্বারা মানুষ হত্যা করে জনসমাজে আতঙ্ক সৃষ্টি করা যায়, কিন্তু তাতে স্থায়ী ফললাভ সম্ভব নয়। বরং একটি হিংসাত্মক কার্যকলাপ আরো অনেক নতুন হিংসার জন্ম দেয়।

সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে উগ্রবাদী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে শনিবার এক বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে ভিড়ের মধ্যে একটি লরি চালিয়ে দোকানে ঢুকে যাওয়ার সময় বেশকিছু সাধারণ মানুষকে হতাহতের ঘটনায় আমি গভীরভাবে মর্মাহত ও বেদনার্ত। বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসের যে নেটওয়ার্ক গড়ে উঠেছে সেটিকে এই মুহূর্তে নির্মূল করতে না পারলে বিশ্বসভ্যতা আদিম অন্ধকারে ডুবে যাবে। পৃথিবীর দেশে দেশে সন্ত্রাসীদের এহেন রক্তাক্ত আক্রমণটি যেন মানুষের স্বাভাবিক জীবনপ্রবাহ রুদ্ধ করে দেয়ার মতো অভিঘাত। এরা মানবজাতির নিরাপত্তার হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। মানুষের শঙ্কা এবং উদ্বেগ প্রতিদিন গভীর থেকে গভীরতর হচ্ছে।

তিনি বলেন, বিএনপি জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল সম্প্রদায়ের সম্প্রীতিতে বিশ্বাসী। বিএনপি বিভিন্ন জাতি ও ধর্মীয় গোষ্ঠীর মধ্যে হানাহানি, রক্তারক্তি ও অন্তর্ঘাতমূলক সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিরোধী। বিশ্বব্যাপী সবধরণের সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বিশ্বের শান্তিকামী মানুষের সঙ্গে একযোগে সমন্বিত উদ্যোগ নিতে বিএনপি দৃঢ় অঙ্গীকারাবদ্ধ। বিশ্ব জনসমাজে শান্তি বিনষ্টকারী খুনোখুনির হোতা হিংস্র সন্ত্রাসীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য বিশ্বসম্প্রদায়কে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানাচ্ছি। তা না হলে বিশ্বের দেশে দেশে অন্তহীন শোকমিছিল চলতেই থাকবে।

LEAVE A REPLY